অর্থ বাইরে পাচার দেশের উন্নয়নের একটি চিত্র : অর্থমন্ত্রী

অর্থ বাইরে পাচার দেশের উন্নয়নের একটি চিত্র অর্থমন্ত্রী

অনলাইন খবর ডটকমঃ


 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, শেয়ারবাজার নিয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না। শেয়ারবাজার খামাকা। কিছু ফটকাবাজ শেয়ারবাজারকে ধ্বংস করেছে। আমি শেয়ারবাজারের জন্য কিছু আইনকানুন করে দিয়েছি। আমরা শেয়ারবাজারে স্থিতিশীলতা আনার চেষ্টা করে যাচ্ছি। রাজধানীর একটি হোটেলে ‘রাজস্ব ও বাজেট’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্ট অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি কাজী আকরাম হোসেনসহ অর্থনীতিবিদ ও বিশিষ্টজনেরা। এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, গার্মেন্টস সেক্টর আমাদের সবচেয়ে প্রিয় খাত। এজন্য তারা সব ধরনের সুবিধা পান। দেশের উন্নয়ন তাদের উন্নয়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তাদের ট্যাক্স সহনীয় পর্যায়ে আনার কথা ভাবছে সরকার। দেশের অর্থ বাইরে পাচার হয়ে যাচ্ছে এমন এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, টাকা বেড়েছে, তাই পাচার বেড়েছে।

নতুন করে বাড়েনি। এটাও দেশের উন্নয়নের একটি চিত্র, হাসতে হাসতে বলেন অর্থমন্ত্রী। তবে দেশের অর্থ পাচার হয়ে যাচ্ছে এটা মানতে নারাজ বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। এক প্রশ্নের উত্তরে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, দুদকে আমরা হাত দিতে চাই না, যেখানে নৈতিকতার দর্শন সেখানে কোনোমতেই হাত দেয়া উচিত হবে না। মুহিত বলেন, আমাদের সরকারের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে দেশে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সম্প্রচার করা। মাঝে রাজনৈতিক অস্থিরতা দ্বারা এই কর্মকাণ্ড বিঘ্নিত করার চেষ্টা করা হয়েছে। তবে এটা ব্যর্থ হয়েছে। এখন আর কেউ এই অপচেষ্টা চালানোর সাহস পাবে না।

এভাবে অর্থনৈতিক কর্মকতাণ্ড চলতে থাকলে দেশের টাকা আর বিদেশে পাচার হবে না; আপনার অপেক্ষা করেন, সব বন্ধ হয়ে যাবে। অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, ট্যাক্স বেশি ধরলেই বেশি আদায় হবে না; কম ধরলে আদায় হবে বেশি। এজন্য তিনি করপোরেট ট্যাক্স না বাড়ানোর পক্ষে মত দেন। তিনি জানান, এই সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার। ব্যবসায়ীদের স্বার্থে যা যা পদক্ষেপ নেয়ার দরকার সবই সরকার নেবে।

Comments

comments